1. suhagranalive@gmail.com : admin :
June 21, 2021, 6:58 am
শিরোনাম:
নুন্যতম বিশৃংখলা বা বাধাদান বরদাস্থ করা হবে না -পুলিশ সুপার পিরোজপুর  যমুনায় বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতুর নির্মাণসামগ্রী এখন মোংলায় খালাসের অপেক্ষায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ড কাপ অনূর্ধ্ব ১৭ ফুটবল টুনামেন্ট ২০২১ এর পিরোজপুর জেলার অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন পিরোজপুর সদর উপজেলা ৯৯৯ এ কল পেয়ে ঝড়ের কবলে সাগরে দিকভ্রান্ত স্পিডবোট থেকে পাঁচ যাত্রীকে উদ্ধার বজ্রপাত থেকে বাঁচতে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর ২০টি জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে পিরোজপুরে জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন চলবে আগামী ০৫ জুন থেকে ১৯ জুন ২০২১ পর্যন্ত ০৬ মাস থেকে ৫ বছর সকল শিশুদের এ ক্যাপসুল খাওয়াতে হবে মঠবাড়িয়ার দাউদখালিতে ফেইক আইডি বানিয়ে জনপ্রিয় ওয়ার্ড মেম্বারের নামে অপপ্রচার জন মনে অসন্তোষ থানায় অভিযোগ দায়ের ইসরাইলের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ ভূমিকার প্রশংসায় ফিলিস্তিন রাস্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ৩৫ হাজার পাঞ্জাবি উপহার দিলেন ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগ সম্পাদক মিরাজুল ইসলাম “ইউনিটি ফর ওয়েলফেয়ার” স্লোগানে কর্মহীন মানুষের পাশে ঈদ উপহার নিয়ে ‘ফ্রেন্ডস ৯৭ পিরোজপুর

করোনায়ও থমকে নেই প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফসল দক্ষিণাঞ্চলবাসীর প্রাণের পদ্মাসেতুর কাজ

  • প্রকাশের সময় Wednesday, July 1, 2020
  • 241 জন দেখেছেন

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
করোনার মহামারির মধ্যেও থেমে নেই দক্ষিণাঞ্চলের কোটি কোটি মানুষের স্বপ্নের সেতু পদ্মাসেতুর কাজ। শুরুতে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের শিকার হয় এই মেঘা প্রজেক্ট এর সেতুটি। পদ্মাসেতুতে বিশ্বব্যাংকের ঋণদেয়ার কথা থাকলেও পরবর্তীতে দূর্নীতির তকমা লাগিয়ে তারা ঋনের অর্থ দিতে অপারগতা প্রকাশ করে পরবর্তীতে কানাডা আদালতে তা মিথ্যা প্রমানিত হয়। জননেত্রী শেখ হাসিনা শক্ত হাতে দৃঢ়তার সাথে পদ্মাসেতু নিজেদের টাকায় করা হবে বলে ঘোষণা দেন তারই ফলশ্রুতিতে আজকের পদ্মাসেতুর এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সম্পূর্ন দেশীয় অর্থায়নে শেষ হতে যাচ্ছে এই সেতুর কাজ।

গত ১০ জুন ৩১তম স্প্যান স্থাপনের ২০ দিন পর গত মঙ্গলবার বসানোর কথা ছিল পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যানটি। মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর পিলারের ওপর এটি বসানোর সব প্রস্তুতিও ছিল। তবে নদীর তীব্র স্রোতের কারণে এটি নির্ধারিত সময়ে বসানো সম্ভব হয়নি। তবে স্প্যান না বসানো হলেও সেতুর মূল উন্নয়নে এটি কোনো বাধা হয়ে দাঁড়াবে না।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আব্দুল কাদের সাংবাদিকদের জানান,‘জুলাই ও আগস্টে নদীর স্রোত আরো বাড়তে পারে। আর না বাড়লেও যে স্রোত রয়েছে এমনটি থাকলেও স্প্যান বসানো সম্ভব হবে না। তবে স্প্যান বসানো না গেলেও পদ্মা সেতুর উন্নয়ন কাজ বাধাগ্রস্ত হবে না। অন্যান্য কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। স্রোত হ্রাস পেলে একই সঙ্গে একাধিক স্প্যান বসানো হবে।’ ১০ জুন জাজিরা প্রান্তে ২৫ ও ২৬ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হয় ৩১তম স্প্যান। জাজিরা প্রান্তের ২০টির মধ্যে ওই স্প্যানটি ছিল শেষতম স্প্যান। এতে বসে যাওয়া ৩১তম স্প্যানের মধ্যে ২৯টি স্প্যান একসঙ্গে যুক্ত হয়।

নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আব্দুল কাদের আরো বলেন,‘নদীর স্রোত অব্যাহত থাকলে আগামী সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি প্রায় আড়াই মাসে কোনো স্প্যান বসানো সম্ভব হবে না। সাধারণত এই দুই বা আড়াই মাস স্প্যান বসানো যায় না। এটা আমাদের আগে থেকেই কর্ম পরিকল্পনায় ছিল। তবে আগামী নভেম্বরের মধ্যে সবগুলো স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হবে।’

পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম বলেন‘চলতি বছর এই সেতুর ১১টি স্প্যান বসানো হয়েছে। এর মধ্যে সারা দেশে সাধারণ ছুটির মধ্যে ২৭ মার্চ থেকে ৩০ মে পর্যন্ত ৪টি স্প্যান বসানো হয়েছে। আর লকডাউন উঠে যাওয়ার পর ১০ জুনের স্প্যানটিসহ করোনা দুর্যোগের মধ্যেও সেতুর মোট ৫টি স্প্যান বসানো হয়েছে। আমরা আশা করছি যেভাবে উন্নয়ন কাজ এগিয়ে যাচ্ছে তাতে আগামী নভেম্বরের মধ্যেই মূল পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হবে।’

এদিকে, মাওয়া ওয়ার্কশপে আরো চারটি স্প্যানের প্রস্তুতিও চলছে দ্রুত গতিতে। তবে বর্ষায় আবহাওয়া শুষ্ক না থাকার কারণে স্প্যানগুলোর রং শুকাতে সময় বেশি লাগছে। এদিকে পদ্মা সেতুর ৪১টি স্প্যানের মধ্যে ৩৯টির মালামাল করোনা মহামারির আগেই এসেছে। বাকি দুটি স্প্যানের অধিকাংশ মালামালও মাওয়ার কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে পৌঁছেছে।

মাওয়া প্রান্তে ৫, ৬ ও ৭ নম্বর পিলারের ওপর স্প্যান বসেছে আগেই। এই দুই স্প্যানের দু’পাশে বাকি স্প্যানগুলো বসে গেলেই নভেম্বরের মধ্যেই স্বপ্নের পদ্মা সেতুর ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান হবে। চলতি অর্থ বছরে বড় প্রকল্পের মধ্যে সরকারের চতুর্থ সর্বোচ্চ বরাদ্দ পদ্মা সেতুতে। আগামী বছর জুন মাসে প্রকল্পটি শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। তবে সূত্র জানায়, আগামী জুনের মধ্যে প্রকল্প সমাপ্ত করার লক্ষ্য থাকলেও মহামারি করোনার কারণে তা কিছুটা পিছিয়ে যেতে পারে। তবে সেতুর অন্যান্য উন্নয়ন কাজের সঙ্গে দ্রুত গতিতে রেলওয়ের স্লাব বসানোর কাজও এগিয়ে চলছে।

শেয়ার করুন

একই ধরনের খবর
ব্রেকিং নিউজ