1. suhagranalive@gmail.com : admin :
October 24, 2021, 8:46 am
শিরোনাম:
পিরোজপুরে তিন‘শো’ পরিবার পেল প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহযোগিতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফসল পদ্মা সেতুর উপরে সড়কপথের কাজ শতভাগ শেষ ইন্দুরকানীতে ছাত্র ইউনিয়নের নতুন কমিটি ২১ আগস্টে ঘাতকেরা ১৫ ই আগস্টের কালো অধ্যায়ের দাড়ি টানতে চেয়েছিলো!.. কবিতাঃ মহান নেতা শেখ মুজিব, “যত দূরে যাও পাখি, দেখা হবে ফের,স্বাধীন ঐ আকাশটা শেখ মুজিবের” শোকের মাসে যুবলীগ নেতা লিটন সিকদার এর তত্ত্বাবধানে ৭০০ অসহায় পরিবার পেল খাদ্য সহায়তা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পিরোজপুরে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এর ৯১তম জন্ম বার্ষিকী পালন ২০ বছর পরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের পিরোজপুর জেলা কমিটি ঘোষণা পিরোজপুরে চালু হলো বিনামূল্যে অক্সিজেন ব্যাংক

করোনার লকডাউনে ভাল নেই ভাসমান সবজি হাটের ক্রেতা বিক্রেতা

  • প্রকাশের সময় Tuesday, July 6, 2021
  • 199 জন দেখেছেন

স্টাফ রিপোর্টারঃ

পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার বৈটাকাটা ইউনিয়নে বেলুয়া নদীতে নৌকায় বসে সবজি বেচাকেনার হাট। খুব সকালে শান্ত এই নদীতে নৌকা ও ট্রলার চলার ঢেউয়ের তালে তালে চলে নৌকায় সবজি কেনাবেচা। সপ্তাহে শনি ও মঙ্গলবার নৌকায় হরেক রকম শাক-সবজি কেনাবেচার এই দৃশ্য চোখে পরে। বৈঠাকাটা বাজার ঘেঁষা ভাসমান এই হাট স্থানীয়ভাবে ‘বৈঠাকাটা ভাসমান হাট’ নামে পরিচিত।

নাজিরপুর উপজেলা সদর থেকে ১৮ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে কলারদোনিয়া ইউনিয়নের বেলুয়া নদীর তীরে বৈঠাকাটা বাজার। বাজারের পূর্ব পাশে বেলুয়া মুগারঝোর গ্রামের বেলুয়া নদী। অর্ধশত বছরের বেশি সময় ধরে এ হাটে আশপাশের ২০ থেকে ২৫ গ্রামের কৃষকেরা তাঁদের উৎপাদিত সবজি বেচাকেনা করছেন। একসময়ে অনুন্নত সড়ক যোগাযোগব্যবস্থার কারণে স্থানীয় লোকজন নৌপথে চলাচল ও পণ্য পরিবহন করতেন। নৌকায় করে কৃষক হাটে কৃষিপণ্য নিয়ে যেতেন। আবার ক্রেতারা তা কিনে নৌকায় করে চলে যেতেন। নৌকায় বসে কেনাবেচা করতে করতে ভাসমান হাটের সূচনা।
বর্তমানের করোনার লকডাউনে ভাল নেই ক্রেতা বিক্রেতারা সবজির দামও বেড়েছে ক্রেতাও কমেছে। বাজারে ক্রেতা বিক্রেতার সাথে আলাপ করে জানা যায় বর্তমানের করোনার লকডাউনে আসে পাশের জেলাগুলো থেকে আগের মতো ক্রেতা বিক্রেতারা আসছেন না। বাজারে ঘুরে দেখা যায় ২০/২৫ টির মতো নৌকা এসেছে হাটে। করোনা মহামারির আগে এখানে গড়ে ১০০ মতো ছোট বড় নৌকা ট্রলার আসতো। কেউ কেউ সবজি কিনতে এসে দাম বেশি দেখে সবজি কিনছেন না। বেশির ভাগ ক্রেতা এখান থেকে সবজি কিনে আশেপাশের জেলায় নিয়ে বিক্রি করেন। অধিকাংশ ক্রেতা মনে করোনার এই পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে আস্তে আস্তে কমবে ক্রেতা বিক্রেতার সমাগম।

শেয়ার করুন

একই ধরনের খবর
ব্রেকিং নিউজ